আবরার ইফাজ

রিসার্চ অফিসার, ডিসমিসল্যাব
সাকিব, তামিম, মুশফিকের ভিডিও-ছবি পাল্টে দিয়ে বানানো হল জুয়ার অ্যাপের বিজ্ঞাপন
This article is more than 1 month old

সাকিব, তামিম, মুশফিকের ভিডিও-ছবি পাল্টে দিয়ে বানানো হল জুয়ার অ্যাপের বিজ্ঞাপন

আবরার ইফাজ
রিসার্চ অফিসার, ডিসমিসল্যাব

বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক ও মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাকিব আল হাসান বেটিং অ্যাপের প্রচারণা করছেন- এমন একটি ভিডিও প্রচারিত হচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। যাচাইয়ে দেখা যায় ভিডিওটি মৌলিক নয়। সাকিব আল হাসানের পুরোনো একটি ভিডিওতে নকল অডিও বসিয়ে সেটি তৈরি করা হয়েছে। ভিডিওটিতে আরো যুক্ত করা হয়েছে ক্রিকেটার তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিমের ছবি এডিট করে বানানো নকল ফেসবুক পোস্ট।

সম্পাদিত ভিডিওটিতে সময় টিভির লোগো ব্যবহার হতে দেখা যায়। ভিডিওটির শুরুতে দেখা যায় একজন নারী উপস্থাপিকা একটি বেটিং অ্যাপের প্রচারণা চালাচ্ছেন। তিনি বলছেন যে বাংলাদেশের ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান নিজের অ্যাপ উন্মোচন করেছেন। এর পরেই রয়েছে ভুয়া অডিও যুক্ত করা সাকিব আল হাসানের ভিডিওটি।

ডিসমিসল্যাবের যাচাইয়ে দেখা যায়, এই উপস্থাপিকা ভারতের গণমাধ্যম জি নিউজের সাংবাদিক শোভনা যাদভ। ৫ মার্চ ভারতের সময় রাত ৯টায় ‘বাত পাতে কি’ নামক অনুষ্ঠানে শোভনা যাদভকে যে পোশাকে এবং ব্যাকগ্রাউন্ডে উপস্থাপনা করতে দেখা যায়, তা এই জুয়ার অ্যাপের প্রচারণার ভিডিওটির সাথে মিলে যায়। এ থেকে স্পষ্ট হয়, মূলত জি নিউজের অনুষ্ঠানের ভিডিও কেটে তাতে ভুয়া অডিও যুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়াও ভিডিওটির ১৬ সেকেন্ডে একজন ব্যক্তির ফেসবুক পোস্ট দেখা যায়। পোস্টের ক্যাপশনে দাবি করা হয়, সাকিব এবং ব্যাঙ্গার অ্যাপের মাধ্যমে তার জীবনের পরিবর্তন হয়েছে। যাচাইয়ে দেখা যায়, ফেসবুক পোস্টটিও আসল নয়। মূলত পাকিস্তানি ইউটিউবার ও গেমার সাইদ উর রেহমান ওরফে ডাকিভাইয়ের একটি ইনস্টাগ্রাম পোস্ট থেকে ছবি নিয়ে একটি ভুয়া ফেসবুক পোস্ট বানিয়ে ভিডিওতে জুড়ে দেওয়া হয়েছে।

তামিম ইকবালের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ থেকে ব্যাঙ্গার অ্যাপটির প্রচারণা করছে এমন একটি পোস্ট দেখা যায় ভিডিওটির ১৮ সেকেন্ডে। কিন্তু এমন কোনো পোস্ট তামিম ইকবালের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে পাওয়া যায়নি। ভুয়া পোস্টটিতে ব্যবহার করা ছবিটির সূত্র যাচাইয়ে দেখা যায় যে ছবিটি ট্যাপট্যাপ সেন্ড বাংলাদেশ নামের একটি আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপনের অংশবিশেষ।  

বাংলাদেশের ক্রিকেটার মুশফিকুর রহিমের ফেসবুক পেজের একটি পোস্টের মাধ্যমে ব্যাঙ্গার অ্যাপটির প্রচারণা দেখা যায় ভিডিওটির ৩২ সেকেন্ডে। এই ছবিটিও বানানো। মূলত আইডিএলসি ব্যাংকের একটি বিজ্ঞাপনের অংশবিশেষ নিয়ে ভুয়া ফেসবুক পোস্টটি তৈরি করে ভিডিওতে যুক্ত করা হয়েছে।

ভুয়া ভিডিওটির ৩৭ সেকেন্ড রয়েছে সাকিব আল হাসানের ভিডিও। এতে সাকিবকে বলতে শোনা যায়, ‘ শুভ সন্ধ্যা! আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই একটি খবর। আমি সুপার অ্যাপটির একজন পার্টনার হয়েছি। এই দিনে যারা পাঁচ শুন্য শুন্য বাংলাদেশি টাকা হতে নূন্যতম শুরু করে রেজিস্ট্রেশন করবেন, তাদেরকে আমার পক্ষ থেকে সুপার বোনাস উপলব্ধ হবে। অ্যাপটির উদ্বোধন উদযাপনের উদ্যোগে এই অফারটি কেবলমাত্র দুই দিনের জন্য প্রযোজ্য। আমি আপনাকে নিশ্চিত করতে পারি এটি সম্পূর্ণ নিরাপদ……।” 

ভাষাগত বিষয়টি যাচাইয়ে দেখা যায়,  মূলত ইংরেজিতে প্রচারণাটি লিখে গুগলে অনুবাদ করে সাকিবের কণ্ঠে বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে ‘Super bonus will be available from me’ হয়ে গেছে ‘আমার পক্ষ থেকে সুপার বোনাস উপলব্ধ হবে’- যা বাংলা ভাষার গঠন বা চলনের সঙ্গেও বেমানান। শোভনা যাদভের কণ্ঠে বসানো বাংলা ভাষায়ও উচ্চারণগত অনেক সমস্যা দেখা যায়। ‘পাঁচ শুন্য শুন্য বাংলাদেশি টাকা’ বলাটাও আভাস দেয় এটা পাঠ করানো হয়েছে প্রযুক্তির সহায়তায়।

ডিসমিসল্যাব দেখেছে, সাকিবের ভিডিওটি ২০২৩ সালের ১৭ এপ্রিল তাঁর অফিসিয়াল পেজে পোস্ট করা হয়েছিল। এতে দেখা যায়, তিনি খেলাধুলার সামগ্রী তৈরিকারী প্রতিষ্ঠান পুমার বিজ্ঞাপনী প্রচারণা করছেন। সেই অডিও মুছে দিয়ে নকল অডিও বসানো হয় বেটিং অ্যাপ ব্যাঙ্গারের ভুয়া ভিডিওতে।সাকিব আল হাসানের ছবি ও ভিডিও সম্পাদনার মাধ্যমে বেটিং সাইটের প্রচারণার বিষয়ে ইতিমধ্যে একাধিক ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে ডিসমিসল্যাব (, )। এই ধরণের ভুয়া ভিডিও ও ছবির মাধ্যমে বেটিং সাইটের বিজ্ঞাপন প্রচারের শিকার হয়েছেন বাংলাদেশি ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা এবং মুস্তাফিজুর রহমানও

আরো কিছু লেখা