আবরার ইফাজ

রিসার্চ অফিসার, ডিসমিসল্যাব
ভারতে আবিষ্কৃত নতুন ব্যাকটেরিয়ার নাম কি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর?
This article is more than 2 months old
bacteria-3662695_1280

ভারতে আবিষ্কৃত নতুন ব্যাকটেরিয়ার নাম কি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর?

আবরার ইফাজ
রিসার্চ অফিসার, ডিসমিসল্যাব

সম্প্রতি নতুন আবিষ্কৃত একটি ব্যাকটেরিয়ার নাম রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর রাখা হয়েছে বলে খবর প্রকাশিত হয়েছে বাংলাদেশের গণমাধ্যমে। পরে অন্তত ৮টি শিক্ষামূলক ফেসবুক পেজ ও গ্রুপেও এটি ছড়াতে দেখা গেছে। মূলত ভারতের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদল ব্যাকটেরিয়ার একটি নতুন প্রজাতির এমন নাম রাখেন বলে খবর প্রকাশ করে গণমাধ্যমগুলো। কিন্তু ভারতের একাধিক খবরের সূত্র থেকে জানা যায়, রবীন্দ্রনাথের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ব্যাকটেরিয়াটির নামকরণ করা হয়- ‘প্যান্টোইয়া টেগরি’।

মূলত এই শিরোনামে গত ২২ ও ২৩ ডিসেম্বরে সংবাদ প্রকাশ করে বাংলাদেশের অন্তত দুটি গণমাধ্যম (, )। এই সংবাদকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই তথ্য ছড়াতে শুরু করে যে, নতুন ব্যাকটেরিয়ার নাম রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর (, , , , , , )। ডিবিসি নিউজের সংবাদটিতে বলা হয়, “ভারতের বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ সদস্যের একটি গবেষকদল ব্যাকটেরিয়ার একটি নতুন প্রজাতি আবিষ্কার করেছেন। এটি বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে উৎসর্গ করে এর নাম দিয়েছেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। নতুন প্রজাতির এই ব্যাকটেরিয়া উদ্ভিদের বৃদ্ধিকে পুষ্ট করে।” এই সংবাদে তারা ইন্ডিয়ান জার্নাল অফ মাইক্রোবায়োলজি ও দ্য ইকোনমিক টাইমসের সূত্র উল্লেখ করে। কিন্তু দ্য ইকোনমিক টাইমসের শিরোনামেই বলা হচ্ছে, “প্যান্টোইয়া টেগরি: গাছপালার জন্য সহায়ক এমন একটি ব্যাকটেরিয়াকে রবীন্দ্রনাথের ঠাকুরের নাম দিয়েছেন বিশ্বভারতীর গবেষকরা”। গত ২২ ডিসেম্বরে প্রকাশিত সংবাদটিতে বলা হয় যে, উদ্ভিদবিদ্যা বিভাগের অনুজীববিজ্ঞান গবেষণাগারের সহকারী অধ্যাপক বোম্বা দামের নেতৃত্বে কলকাতার বিশ্বভারতীর গবেষকদের একটি দল উদ্ভিদের বৃদ্ধির জন্য উপকারী অনন্য বৈশিষ্ট্যযুক্ত ব্যাকটেরিয়ার একটি নতুন প্রজাতি শনাক্ত করেছে। কৃষির প্রচারে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করা নোবেল বিজয়ী রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ব্যাকটেরিয়াটির নামকরণ করা হয়েছে; প্যান্টোইয়া টেগরি।

এছাড়াও, ইন্ডিয়ান জার্নাল অফ মাইক্রোবায়োলজির আর্টিকেলেও দেখা যায় যে রাজু বিশ্বাস, অরিজিৎ মিশ্র, সন্দীপ ঘোষ, অভিনবা চক্রবর্তী, পূজা মুখার্জি ও বোম্বা দাম নামের ৬ জন গবেষকের এই গবেষণায় আবিষ্কৃত প্যান্টোইয়া শ্রেণির এই নতুন ব্যাকটেরিয়াটির জন্য ‘প্যান্টোইয়া টেগরি’ নামটি উত্থাপন করা হয়। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের সংবাদে নামকরণের কারন জিজ্ঞেস করলে বোম্বা দাম জানান, “গুরুদেব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর এবং তাঁর পুত্র রথীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কৃষি সাধনাকে সম্মান জানানোর এটাই সর্বোত্তম উপায়। ঠাকুর তার ছেলেকে আমেরিকার ইলিনয়ে কৃষি বিজ্ঞান পড়তে পাঠিয়েছিলেন।”

কিন্তু বাংলাদেশে প্রকাশিত সংবাদগুলোতে প্যান্টোইয়া টেগরি নামটি উল্লেখ না করে বলা হয়, এই ব্যাকটেরিয়ার নাম রাখা হয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। ফলে এই বিষয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয় এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিষয়টি ভুলভাবে উপস্থাপিত হয়। ডিবিসি নিউজ ও বাংলাদেশ জার্নালের ফেসবুকে শেয়ার হওয়া পোস্ট দুটি অন্তত ৬৯ ও ৪৪ বার শেয়ার হতে দেখা যায়। এই সংবাদটি এসএসসি ব্যাচ ২০২৪, মেডি ড্রিম, হেলথ পয়েন্ট বিডি নামক শিক্ষামূলক গ্রুপেও তথ্য আকারে ছড়াতে দেখা যায়। এছাড়াও,  স্পেশাল বিসিএস ফর টিচার্স, আমিনুল স্যার, বাংলা, মোহাইমিনুল’স প্ল্যানেট, এইচএসসি টু ইউনিভার্সিটি এডমিশন টেস্টের মতো পেজগুলোও – যেগুলো মূলত শিক্ষামূলক পোস্ট করে – ভুল সংবাদটিকে তথ্য আকারে শেয়ার করে।

আরো কিছু লেখা