তামারা ইয়াসমীন তমা

রিসার্চার, ডিসমিসল্যাব
পোশাক নিয়ে কাড়াকাড়ির ভিডিওটি ফিলিপাইনের, বঙ্গবাজারের নয়
This article is more than 11 months old
Bongobazar Video Factcheck Feature Image

পোশাক নিয়ে কাড়াকাড়ির ভিডিওটি ফিলিপাইনের, বঙ্গবাজারের নয়

তামারা ইয়াসমীন তমা
রিসার্চার, ডিসমিসল্যাব

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া একটি ভিডিওকে বঙ্গবাজারে আগুন লাগার পর কাপড় চুরির ধারণকৃত দৃশ্য বলে দাবি করা হয়। একাধিক ফেসবুক প্রোফাইল থেকে রিলস আকারে (, , ) ভিডিওটি আপলোড করা হয়। এছাড়া অনেকে ভিডিওটি সরাসরি কিংবা সঙ্গে নিজস্ব বর্ণনা যুক্ত করে (, ) তা ফেসবুকে আপলোড করে। ইউটিউবটিকটকেও ভিডিওটি প্রচারিত হতে দেখা গেছে। টিকটকের ভিডিওটি তিন লাখের বেশিবার দেখা হয়েছে। তবে যাচাই করে দেখা গেছে, ভিডিওটি ফিলিপাইনের।

ভিডিওটিতে দেখা যায় একটি দোকানের আধখোলা শাটারের নিচ দিয়ে মানুষ হুড়মুড় করে ঢুকে পড়ছে এবং দোকানে থাকা পোশাকগুলো নিতে কাড়াকাড়ি করছে। অনেকে কাপড় ঝুলিয়ে রাখার স্ট্যান্ডিংগুলোতে উঠেও ওপরে সাজানো পোশাকগুলো নামিয়ে আনছে। একটি ব্যক্তিগত আইডি থেকে ভিডিওটি পোষ্ট করার পর এক হাজার বারের বেশি শেয়ার করা হয়। রিলসে যুক্ত ক্যাপশনে একে বঙ্গবাজারে আগুন লাগার পর চুরির ঘটনা বলে দাবি করা হয়। 

তবে ইনভিড কি ফ্রেম সার্চের মাধ্যমে ডিসমিসল্যাব দেখতে পায় যে ভিডিওটি বাংলাদেশের নয়। ২০২৩ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি ফিলিপাইনের গণমাধ্যম নিউজ৫এভ্রিহোয়্যারে ভিডিওটির সবচেয়ে পুরোনো সংস্করণ পাওয়া যায়। প্রতিবেদনটি শিরোনাম ফিলিপিনো ভাষায় লেখা, গুগল ট্রান্সলেটরে যার বাংলা দাঁড়ায়, “লুসিনা-য় (ফিলিপাইনের একটি শহর) একটি উকাই-উকাইতে (ব্যবহৃত কাপড়ের দোকান) ক্রেতাদের ধস্তাধস্তি”।

একই ভিডিও পয়লা মার্চ নেদারল্যান্ডভিত্তিক ট্রেন্ডিং ভিডিও সোর্সিং প্রতিষ্ঠান ক্যামেরাওয়ান শেয়ার করে। ভিডিওটির ক্যাপশন হিসেবে লেখা হয়, “২০২৩ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি ফিলিপাইনের লুসেনাতে একটি সেকেন্ডহ্যান্ড কাপড়ের দোকানে ভিড় জমায় উন্মত্ত ক্রেতারা। দোকানের শাটারের নিচ দিয়ে হামাগুড়ি দিয়ে, এমনকি ডিসপ্লে স্ট্যান্ডের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েও যে যার মতো জিনিস নিয়ে কাড়াকাড়িতে ব্যস্ত”।

৩ মার্চ যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস নিউজ ঘটনাটি নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করে। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, “২৪ ফেব্রুয়ারি ফিলিপাইনের লুসেনা সিটিতে একটি ব্যবহৃত কাপড়ের দোকান খোলা হলে হুড়োহুড়ি লেগে যায়। দোকানের মালিক মিলড্রেড গার্সিয়া বুন্দিয়ালান বলেন, তিনি নতুন কাপড় আসার ঘোষণা দেওয়ার পর ক্রেতাদের এই উত্তেজনা দেখে অভ্যস্ত। তবে তিনিও সেদিন পোশাক কিনতে এই পাগলামি দেখে বিস্মিত হন।“

প্রতিবেদনটিতে আরও বলা হয়, কম দামে ব্র্যান্ডের পোশাক পেতেই এই কাড়াকাড়ি। ফিলিপাইনে ব্যবহৃত পোশাক বিক্রির এই উকাই-উকাই দোকানগুলো বেশ জনপ্রিয় বলেও উল্লেখ করা হয়।

অর্থাৎ, কাপড়ের দোকানে হুড়োহুড়ির ভিডিওটি বঙ্গবাজারের নয়।

এই ভিডিওটি ছাড়াও ইউটিউব ও ফেসবুকে প্রচারিত বঙ্গবাজারের আগুন নেভাতে হাতিরঝিল থেকে হেলিকপ্টারে পানি তোলার আরেকটি ভিডিও (, , ) ছড়িয়ে পড়েছে। যাচাইয়ে দেখে গেছে, এটিও বাংলাদেশ নয়, বরং স্পেনের।

ভারতের গণমাধ্যম আজতকের প্রতিবেদনে একই ছবি যাচাই করে বলা হয়, স্পেনের পতাকা সম্বলিত এ ধরনের হেলিকপ্টারগুলো অগ্নিনির্বাপণের কাজে ব্যবহৃত হয়। 

আরো কিছু লেখা