ফামীম আহমেদ

রিসার্চার, ডিসমিসল্যাব
বিজ্ঞানীদের গ্রুপ ফটোতে নোবেল বিজয়ীদের সংখ্যায় অতিরঞ্জন
This article is more than 11 months old
Noble-Featured-Image

বিজ্ঞানীদের গ্রুপ ফটোতে নোবেল বিজয়ীদের সংখ্যায় অতিরঞ্জন

ফামীম আহমেদ
রিসার্চার, ডিসমিসল্যাব

সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে একটি সাদাকালো ছবি দিয়ে দাবি করা হচ্ছে, এই ছবির ২৯ জনের ২৮ জনই বিজ্ঞানের বিভিন্ন শাখায় নোবেল পুরস্কার জিতেছেন। সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে এরকম দাবি সম্বলিত অনেক পোস্ট পাওয়া গেছে। পোস্টে যুক্ত সাদা-কালো একটি ছবির সাথে লেখা রয়েছে, “এটি পৃথিবীর ইতিহাসে সবচেয়ে ‘বুদ্ধিমান’ লোকদের গ্রুপ ফটো। ছবিটিতে আছেন আলবার্ট আইনস্টাইন, ম্যারি কুরি, নিল বোর এবং অন্যান্য। ছবির ২৯ জনের মধ্যে ২৮ জনই নোবেল পুরস্কার বিজয়ী।”

ডিসমিসল্যাব যাচাই করে দেখেছে যে দাবিটি বিভ্রান্তিকর। ২৮ জন নয়, মূলত এই ছবির ১৭ জন বিভিন্ন সময়ে বিজ্ঞানের একাধিক বিভাগে নোবেল পুরস্কার অর্জন করেছেন।

@apni_ki_janen নামের ইনস্টাগ্রাম একটি অ্যাকাউন্ট থেকে ছবিটি ২০১৯ সালে এবং ২০২২ সালের জুন মাসে শেয়ার করা হয়। একই নামের ফেসবুক পেজেও দাবিটি পাওয়া যায়। একই দাবি নিয়ে “Scientific Discuss – বৈজ্ঞানিক আলোচনা” গ্রুপের ২০২২ সালের ৪ সেপ্টেম্বরের একটি পোস্টে ৬০ হাজারের বেশি রিএ্যাক্ট পড়ে এবং তা প্রায় চার হাজার বার শেয়ার হয়।

ছবিটি নোবেল প্রাইজ কর্তৃপক্ষের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটেও পাওয়া যায়। সেখানে ছবিতে উপস্থিত ২৯ জন বিজ্ঞানীর প্রত্যেকের নাম উল্লেখ করে বলা হয়, এদের মধ্যে ১৭ জন নোবেল পুরস্কার অর্জন করেছেন। আরও বলা হয়, ছবিটি তুলেছিলেন বেলজিয়ান ফটোগ্রাফার বেনজামিন কুপ্রি। পঞ্চম সোলভে ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন ইলেক্ট্রনস অ্যান্ড ফোটনস-এ অংশগ্রহণকারী বিজ্ঞানীদের ছবি ও তাদের পরিচয় পাওয়া যায় এই ছবিতে

২০১৬ সালের ১৬ নভেম্বর, একই তথ্য নোবেল প্রাইজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজেও পোস্ট করা হয়েছিল।  নোবেলজয়ী সেই ১৭ জন বিজ্ঞানীর নাম হচ্ছে: আরউইন স্রোডিঞ্জার, উলফগ্যাং পাউলি, ভার্নার হাইজেনবার্গ, পিটার ডিবে, উইলিয়াম ব্রাগ, পল ডিরাক, আর্থার কম্পটন, লুই দ্য ব্রগলি, ম্যাক্স বর্ন, আর্ভিং ল্যাংমিয়র, ম্যাক্স প্ল্যাংক, হেন্ড্রিক লোরেন্‌ৎস , নিলস বোর, মেরী কুরি , আলবার্ট আইনস্টাইন, চার্লস উইলসন,  ওয়েন উইলিয়ান্স রিচার্ডসন।

যাদের নাম এই ছবিতে উল্লেখ আছে কিন্তু নোবেল পাননি তারা হলেন: অগাস্টে পিকার্ড, পল ইয়েরেনফেস্ট, এডুয়ার্ড হার্জেন, থিওফিল ডি ডোন্ডের, জুলস এমিল ভারশাফেল্ট, রালফ এইচ ফাউলার, লিঁও ব্রিলুয়াঁ, মার্টিন নুডসেন, হান্স ক্রেমার্স, পল ল্যাংগেভিন, শার্ল ইউজেন গুই, এমিল অঁরিও।

অর্থাৎ ছবিটিতে উপস্থিত ২৯ জন বিজ্ঞানীর ২৮ জনই নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন– এমন দাবি বিভ্রান্তিকর। মূলত ছবিতে উপস্থিত ২৯ জনের মধ্যে ১৭ জন এখন পর্যন্ত নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন।

এছাড়াও “বাংলা সাইক্লোন” পেইজটির প্রতিষ্ঠাতা “রাজু রাজ” ২০১৯ সালে এটি “BCS or BANK : OUR GOAL™ [Largest Job group of Bangladesh ] গ্রুপে ও “Education Center” গ্রুপেও একই ছবিটি পোস্ট করেন। 

২০২২ সালে “বাংলা সাইক্লোন” পেজের শেয়ারকৃত ছবিটির উৎস “আপনি কি জানেন?” নামের পেজটি হলেও ২০১৯ ও ২০২০ সালের ছবিটির উৎস ছিল “দ্য আর্থ বাংলা” নামের পেজ থেকে করা পোস্টটি।

এছাড়াও ২০২১ সালে ইসলাম সংক্রান্ত পোস্ট শেয়ার করে এমন কিছু ফেসবুক পেজ এবং গ্রুপে এই ছবিটিকে তথ্যসূত্র হিসেবে ব্যবহার করে ধর্মীয় আলোচনাও করা হয়। মূলত নাভিদ আহমেদ নামক একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী নানা গ্রুপে এটি পোস্ট (,,) দিয়েছিলেন। তার পোস্টটি পরে  “Alo – আলো” নামক পেজের পোস্টের মাধ্যমে আরও ছড়িয়ে পড়ে। 

একই দাবির একটি ইংরেজি ভার্সনও ডিসমিসল্যাবের চোখে পড়ে। ডিসমিসল্যাবের অনুসন্ধানে দাবিটির ইংরেজি ভার্সনের সবচেয়ে পুরোনো পোস্টটি “9gag” পেজের ২০১৮ সালের মে মাসে একটি পোস্টে পাওয়া গেছে। কাছাকাছি সময়ে রেডিট ফোরামেও এ সংক্রান্ত একটি পোস্ট দেখা যায়।

শুধু ২০১৮ সাল থেকে শেয়ার হতে থাকা এই পোস্টটি কেবল সে বছরই ফেসবুকে ৩১ বার শেয়ার করা হয়েছে। তখন থেকে এখন পর্যন্ত এই দাবিসম্বলিত ১৭৪টি পাবলিক পোস্ট পাওয়া গেছে। এছাড়া ইন্সটাগ্রামেও ২০১৮ সাল থেকে এই সংক্রান্ত পোস্ট পাওয়া গেছে। 

এছাড়া ইউটিউবেও এই দাবি সম্বলিত ভিডিও (, , ) খুঁজে পাওয়া গেছে। সেখানে মূলত হিন্দি ভাষায় “Youtube Shorts” হিসেবে এই দাবিটি ছড়িয়ে পড়েছে।

জনমনে প্রতিক্রিয়া 

এই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অনেকেই জানতে চেয়েছেন, নোবেল না পাওয়া সেই বিজ্ঞানীটি কে? কেউ কেউ আবার সেই নোবেল না পাওয়া বিজ্ঞানী হিসেবে নিকোলা টেসলা’র নাম বলছেন। তবে বিজ্ঞানী টেসলা এই কনফারেন্সে ছিলেন না এবং এই ছবিতেও তিনি অনুপস্থিত। এছাড়াও, এই ছবিসম্বলিত পোস্টটি সত্য ভেবে অনেকে ধন্যবাদ জানিয়ে শেয়ার করেছেন বলেও দেখা যাচ্ছে।

আরো কিছু লেখা