মিনহাজ আমান

রিসার্চ-লিড, ডিসমিসল্যাব
তিনটি নয়, তিন প্যাকেট টমেটো কেনা যাচ্ছে
This article is more than 12 months old
তিন প্যাকেট টমেটো

যুক্তরাজ্যের সুপারশপে রেশনিং

তিনটি নয়, তিন প্যাকেট টমেটো কেনা যাচ্ছে

মিনহাজ আমান
রিসার্চ-লিড, ডিসমিসল্যাব

গত ২৭ ফেব্রুয়ারি থেকে বাংলাদেশের একাধিক গণমাধ্যমে (,,,,,,,) একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে যেখানে বলা হচ্ছে, যুক্তরাজ্যের ক্রেতারা সুপারমার্কেট থেকে তিনটির বেশি টমেটো কিনতে পারছেন না। এসব খবরে বলা হয়, টেসকো, আসডা ও আলডির মতো সুপারশপে টমেটোসহ বেশ কিছু সব্জি ও ফলের ওপর এই ধরণের ক্রয়সীমা আরোপ করা হয়েছে। কিন্তু যাচাই করে দেখা গেছে, এই তিনটি সুপারশপ থেকে তিনটি নয়, বরং সর্বোচ্চ তিন ইউনিট বা তিন প্যাকেট টমেটো কেনা যাচ্ছে।

‘লন্ডনে ছয়টি ডিম ৫৫০ টাকা, কেনা যাচ্ছে না তিনটির বেশি টমেটো’ শিরোনামে একটি খবর প্রকাশ করে বাংলা ট্রিবিউন। স্থানীয় প্রতিবেদকের বরাতে সেখানে বলা হয়, “ব্রিটেনের চারটি সুপার মার্কেট চেইনশপ কোম্পানি টমেটো, শসা ও ম‌রিচ বিক্রিতে রেশ‌নিং চালু করেছে। এসব কোম্পানির মধ্যে রয়েছে টেসকো, আলডি, আসদা ও মরিসন্স। এসব সুপার শপে একজন ক্রেতা তিনটির বেশি টমেটো, মরিচ ও শসা কিনতে পারছেন না।” 

দৈনিক প্রথম আলো অনলাইনের সংবাদ শিরোনামে বলা হয়, “যুক্তরাজ্যে ২-৩টির বেশি টমেটো কিনতে পারছেন না ক্রেতারা।” আর যুগান্তরের অনলাইন বলেছে, “যুক্তরাজ্যে তিনটির বেশি টমেটো কেনা নিষেধ।” খবরগুলো পোস্ট আকারে সামাজিক মাধ্যমেও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে।

যাচাইয়ের জন্য, ডিসমিসল্যাব একজন যুক্তরাজ্য প্রবাসী বাংলাদেশীকে আসডা সুপারশপে গিয়ে টমেটো কিনতে অনুরোধ জানায়। তিনি ২৮ ফেব্রুয়ারি সকালেই এসেক্সের টিলবারিতে অবস্থিত আসডা স্টোর থেকে তিন ইউনিট (প্যাকেট) সালাদ টমেটো ক্রয় করেন এবং টমেটো ও সাড়ে চার পাউন্ডের রসিদের ছবি তুলে পাঠিয়ে দেন। অর্থাৎ, তার কেনা প্রতি ইউনিটে আধ ডজনের বেশি টমেটো রয়েছে। 

আসডার অনলাইন শপে গিয়ে সার্চ করে দেখা যায়, সেখানে ৭৫০ গ্রামের প্যাকেটে টমেটো বিক্রি হচ্ছে। একইভাবে টেসকো এবং আলডির ওয়েবসাইটে একই চিত্র পাওয়া যায়। টেসকোর অনলাইন শপে ৩৬০ গ্রামের প্যাকেটে টমেটো বিক্রি হচ্ছে, যাদের প্রতিটিতে ছয়টি করে টমেটো আছে। আলডিতেও সালাদ টমেটো বিক্রি হচ্ছে ইউনিট হিসেবে, পিস বা একটি-দুটি করে নয়। প্রতিটি স্টোরই ঘোষণা দিয়েছে সর্বোচ্চ তিনটি করে ইউনিট কেনা যাবে।

বাংলাদেশের গণমাধ্যমে তিনটির বেশি টমেটো কেনা যাচ্ছে না বলে যেসব খবর বেরিয়েছে, তাদের অধিকাংশের বরাত মূলত রয়টার্স এবং গার্ডিয়ান। 

“ভেজিটেবল শর্টেজ ইন ইউকে কুড বি ‘টিপ অফ আইসবার্গ’, সেইস ফার্মিং ইউনিয়ন” শিরোনামে দ্য গার্ডিয়ানে একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি। সেখানে বলা হয়েছে, “টেসকো এবং আলডি সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসাবে গ্রাহকদের জন্যে টমেটো, মরিচ এবং শসা ক্রয় তিন ইউনিটে সীমাবদ্ধ করছে, অন্যদিকে আসডা লেটুস, সালাদ ব্যাগ, ব্রোকলি, ফুলকপি এবং র‌্যাস্পবেরি ক্রয়ে গ্রাহকদের সীমাবদ্ধ করছে। ইতিমধ্যে, মরিসন্স টমেটো, শসা, লেটুস এবং মরিচের ক্ষেত্রে গ্রাহক প্রতি দুটি আইটেমের সীমা নির্ধারণ করেছে।”

অর্থাৎ দ্য গার্ডিয়ানের খবরে টমেটোসহ একাধিক সবজির সংকটের কথা বললেও তিনটির বেশি টমেটো কেনার কথা কোথাও বলেনি। বরং সেখানকার সুপারশপগুলো সব্জি ক্রয়ে সীমাবদ্ধতার ক্ষেত্রে ইউনিটের কথা বলছে। যেমন, টেসকো এবং আলডিতে টমেটো বা মরিচ কিনতে পারা যাবে সর্বোচ্চ তিন ইউনিট। আবার মরি্সন্সে টমেটো বা শসার ক্ষেত্রে দুই ইউনিটের কথা বলা হয়েছে।  

রয়টার্সের এ সংক্রান্ত একটি খবর প্রকাশ করে গত ২১ ফেব্রুয়ারি। সেখানে বলা হয়, টমেটো, কাচামরিচ, শসা, লেটুস, সালাদ ব্যাগ, ব্রকলি, ফুলকপি ও রাসপবেরি ক্রয়ের ক্ষেত্রে তিন প্যাকের সীমা আরোপ করেছে আসডা। আসডার মুখপাত্র রয়টার্সকে জানায়, “আমরা খুব অল্প সংখ্যক ফল এবং সবজির তালিকার ক্ষেত্রে তিনটি আইটেম কেনার অস্থায়ী সীমা চালু করেছি, যাতে গ্রাহকেরা যে পণ্যগুলো খুঁজছেন তা বাছাই করতে পারেন।”

সিএনএনের খবরে ক্রয়ের পরিমানের ব্যাপারটি আরো স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে। সেখানে আসডার বরাতে জানানো হয়েছে যে তারা সাময়িকভাবে সবজি ক্রয়ের ক্ষেত্রে তিন প্যাকেটের একটি সীমা বেঁধে দিয়েছে। এসব সবজির ক্ষেত্রে রয়েছে টমেটো, মরিচ, শসা এবং লেটুস। উল্লেখ্য, সিএনএনের বরাতে বাংলাদেশের বণিক বার্তা একই খবর প্রকাশ করেছে এবং সেখানে তারা তিন প্যাকেটের কথা উল্লেখ করেছে।

আরো কিছু লেখা